নিম পাতার গুনাগুন

2017-10-28 স্বাস্থ্য পরামর্শ

নিম গাছ আমাদের দেশে ঔষধি বৃক্ষ হিসেবে পরিচিত নিমগাছের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। চর্মরোগসহ শরীরের মেলানিন পরিবর্তন এবং বিভিন্ন ধরনের অ্যালার্জি জনিত সমস্যা কৃমি সমস্যা এবং উচ্চ রক্তচাপ কমাতে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে নিমপাতার যথেষ্ট গুণাগুণ রয়েছে how many পাতার কয়েকটি ব্যবহার সম্পর্কে জানব।

১। অ্যালার্জি প্রতিরোধে নীড়পাতাঃ সাধারণত রক্তে যদি বিষাক্ত জীবাণুর পরিমাণ বেড়ে যায় তাহলে শরীরের উপরে চুলকাতে পারে আর এটাই এলার্জি অর্থাৎ এলার্জি কমাতে নিমপাতা খুব উপকারী প্রতিদিন সকালে খালি পেটে নিম পাতার রস খেলে শরীরের ভেতরের রক্ত পরিষ্কার হয় এবং রক্তের ভিতরের বিভিন্ন জীবাণু গুলোকে ধ্বংস করে এতে করে রক্ত পরিষ্কার হওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের অ্যালার্জি চিরকালের ভালো হয় ।

২। শরীরের মেলানিন পরিবর্তনের ক্ষেত্রে কাজ করেঃশরীরের ভেতরে এক ধরনের মেলালিন থাকে আর এই মেলালিন এর কারণেই কিন্তু মানুষ ফর্সা এবং কালো হয় আর শরীরের ভেতরকার এই মেলানিন পরিবর্তন করতে পারে নিম পাতার রস আপনি যদি প্রতিদিন সকাল বেলা খালি পেটে টানা তিন মাস নিম পাতার রস খেতে পারেন তাহলে আপনার শরীরের ভেতরের মেলানিন পরিবর্তনে যাবে অর্থাৎ মেলানিন পরিমাণ যদি বেশি থাকে তাহলে তা কমে যাবে এবং এতে করে আপনি ফর্সা হবেন নিঃসন্দেহে।

৩।কৃমি সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে পারেনঃ অনেকেই দেখা যায় যে বিভিন্ন রকমের পরজীবী সংক্রান্ত বিশেষ করে কৃমির আক্রমণ ঘটতে থাকে কোন ওষুধ কিংবা কোনো কিছু মাধ্যমেই কৃমির সমস্যা দূর হয় না এটা মূলত যারা জীবাণু যুক্ত হাতে খাবার দাবার খান তাদের ক্ষেত্রে বেশি হয় তবে যাই হোক না কেন খালি পেটে যদি টানা তিনদিন নিমপাতার রস খেতে পারেন তাহলে নিঃসন্দেহে বলা যায় যে আপনার শরীরের ভিতর থেকে মলের মাধ্যমে শরীর থেকে বের হয়ে যাবে।



Similar Post You May Like