শসার উপকারিতা

2017-10-07 খাবারদাবার

শসা আমাদের দেশের কাঁচা সবজি হিসেবে পরিচিত।আমাদের দেশে সালাদ তৈরিতে  শসা ব্যবহার করা হয়ে থাকে।  শসা  খুব জনপ্রিয় একটি সালাদ তৈরীর সবজি অনেকে শসার গুনাগুন জেনে শসার সালাদ খায়। আবার অনেকে না জেনেই খায়।তাই আসুন সচেতন মানুষ হিসেবে আজকে আমরা জেনে নেই খাবারের সাথে  একটা শসার সালাদ  আপনার শরীরের জন্য কতটা উপকারী ভূমিকা রাখতে পারে।

১।খাবারে যদি উচ্চমানের আমিষ থাকে,  তাহলে সেটাকে সহজেই হজম করানোর ক্ষেত্রে কোনো বিকল্প নেই।

২। যারা উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যায় ভোগেন এবং রক্তচাপ নিয়মিত নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকে ।তারা নিয়মিত সকালে এবং রাতে শোবার আগে এক গ্লাস শসার জুস পান করলে এই সমস্যা থেকে পরিত্রান পাবেন।

৩। চর্বি  সমস্যার কারণে যারা ক্রমান্বয়ে মুটিয়ে যাচ্ছেন, নিয়মিত শসার জুস খেতে পারেন এতে করে আপনার শরীরের বাড়তি চর্বি কাটাতে অভাবনীয় ওষুধ হিসেবে কাজ করবে।

৪। আমাদের শরীরে  সাধারণত দুই ধরনের কোলেস্টেরল থাকে একটা ক্ষতিকর এবং একটি উপকারী ক্ষতিকর কোলেস্টেরল  যদি পরিমাণে বেড়ে যায় সেক্ষেত্রে আমরা শারীরিক জটিলতায় ভুগতে থাকি।আর এর সহজ সমাধান করতে পারে সকালে খালি পেটে খাওয়া এক গ্লাস শসার জুস ।

৫।শসা পানিশূন্যতা দূর করে,  পানি শূন্যতার কারণে নানা ধরনের অসুখ বাসা বাঁধতে পারে এই সমস্যার সহজ সমাধান দিতে পারে শসার জুস অথবা শসা চিবিয়ে খাওয়ার অভ্যাস 

৬।শসা শরীরের ভেতরের উচ্চতাপ কে নিয়ন্ত্রণ করে অনেক সময় দেখা যায় শরীরের ভেতরে প্রচণ্ড তাপ অনুভূত হয় এবং শরীরের ভিতরে জ্বালাপোড়া সমস্যা অনুভূত হতে থাকে। এ সমস্যার সমাধান দিতে পারে শশা। আপনি যদি নিয়মিত শসার জুস পান করেন তাহলে আপনার শরীরের জ্বালা পোড়া জনিত যেকোন রকমের সমস্যা থেকে আপনি মুক্তি পেতে পারেন।

৭। শসার জুসে এক ধরনের রঞ্জক পদার্থ যার মাধ্যমে আপনার শরীরের বিষাক্ত পদার্থগুলো অপসারণের মাধ্যমে আপনার কিডনি কি ভালো রাখতে সাহায্য করে।

৮।শসাতে থাকে উচ্চমাত্রার পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও সিলিকন  যা আপনার ত্বকের পরিচর্যার জন্য বিশেষ ভূমিকা পালন করে এবং ত্বককে সুন্দর মসৃণ রাখতে সহায়ক।

৯। এছাড়াও চোখের জ্যোতি বাড়ানোর ক্ষেত্রে কার্যকরী উচ্চমাত্রার পটাশিয়াম ম্যাগনেশিয়াম এবং সিলিকন থাকার কারণে এটি দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে  কাজ করে।



Similar Post You May Like