স্নাতক পাস করে বিয়েতে মিলবে ৫১ হাজার রুপি

2017-10-16 এশিয়া

ভারত সরকার ভারতে বসবাসরত মুসলিম নারীদের শিক্ষার হার বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি নতুন আইন পাশ করেছেন আর সেটি হচ্ছে কোন শিক্ষিত অর্থাৎ স্নাতক পাশ করার পরে কোন মুসলিম নারী যদি বিয়ের পিঁড়িতে বসে তাহলে সে এককালীন ভাবে সরকারের কাছ থেকে পাবে ৫১ হাজার রুপি।দেশটির সংবাদ মাধ্যমগুলোতে জানানো হয়েছে ।

ভারতে ২০০৩ সালে অটলবিহারি বাজপেয়ির আমলে সংখ্যা লঘু সম্প্রদায়ের জন্য বৃত্তি চালু করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার।বৃত্তির নিয়ম অনুসারে দাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনার জন্য মুসলিম নারীদেরকে বৃত্তি প্রদান করা হতো এবং যে প্রকল্পের মাধ্যমে বৃত্তি প্রদান করা হতো সেটি হচ্ছে বেগম হজরত মহল স্কলারশিপ’।

পরবর্তীতে এক সংবাদ মাধ্যমের এ তথ্য জানা গেছে যে মুসলিম নারীদের শিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে এবং নারীদেরকে স্বনির্ভর করে গড়ে তুলতে ভারত সরকার স্নাতক পাস পর্যন্ত পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন মেয়েদের এবং এর পাশাপাশি তিনি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন যে কোন নারী যদিস্নাতক পাশ করার পরে বিয়ের পিঁড়িতে বসে তাহলে তাকে এককালীন ভাবে ৫১ হাজার রুপি তিনি প্রদান করবেন, এবং একটি প্রকল্পের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হবে স্নাতক পাস করে বিয়ে করলে ৫১ হাজার রুপি পাবেন। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হবে যে প্রকল্পের মাধ্যমে সে প্রকল্প এর নাম ‘মৌলানা   আজাদ এডুকেশন ফাউন্ডেশন।

এর সাথে সংযুক্তরা মনে করছেন মুসলিম নারীর শিক্ষিতের হার বাড়বে সেই সাথে তারা সমাজে মাথা উঁচু করে বসবাস করতে পারবে।মওলানা আজাদ এডুকেশন ফাউন্ডেশনের কোষাধ্যক্ষ শাকির হুসেন আনসারি বলেছেন,যারা ভাবছেন মেয়েকে বিয়ে দেবেন লেখাপড়া করাতে পারছেন না সে সকল বাবা মা এআইনের মাধ্যমে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবে।

এবং তারা একটা সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারবে যে তাদের মেয়ে লেখাপড়া শেষ করে তারপর বিয়ে করবে। এতে করে সেই মেয়েটি পাবে একটি সম্মানিত জীবন এটাই আসলে সরকারের মূল লক্ষ্য ।



Similar Post You May Like