৪ বছরের ছাত্রীকে স্কুলের শৌচাগারে গণধর্ষণ!

2017-12-03 বিবিধ

ভারতের কলকাতা শহরের একটি স্কুলের শৌচাগারে চার বছর বয়সী এক ছাত্রীকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কলকাতার রানিকুঠি এলাকায় একটি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের ঘটনায় ওই স্কুলের এক শিক্ষকসহ আরো কয়েকজন জড়িত রয়েছে বলে জানিয়েছে শিশুটি।

শিশুটির বাবা সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমসকে জানান, স্কুল থেকে ফেরার পর তাঁর মেয়ের শরীর থেকে প্রচুর রক্ত ঝরতে দেখেন। এ ছাড়া সে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিল। এরপর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

শিশুটির বাবা আরো জানান, প্রথমে ধারণা করেছিলেন মেয়ে হয়তো কোনো আঘাত পেয়েছে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক জানান, শিশুটি আসলে যৌন নির্যাতনের শিকার।  

এ বিষয়ে ওই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে একজন আইনজীবী জানান, শিশুটিকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে স্কুলের শৌচাগারের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে এক বা একাধিক ব্যক্তি তাকে শারীরিক নির্যাতন করে। পরে শিশুটিকে  কয়েকজনের ছবি দেখানো হলে দুইজনকে শনাক্ত করে। তাদের মধ্যে একজন স্কুলটির শারীরিক শিক্ষক।

এদিকে শুক্রবার স্কুলের প্রাঙ্গণে বাস প্রবেশে বাধা দেয় বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা। তারা স্কুল থেকে সব শিক্ষককে বরখাস্তের দাবি জানান।

এ বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। জড়িতদের আটকের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

ভারতের কলকাতা শহরের একটি স্কুলের শৌচাগারে চার বছর বয়সী এক ছাত্রীকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।



Similar Post You May Like